April 24, 2024 11:42 am
হাসারাঙ্গা
হাসারাঙ্গা

বড় শাস্তি থেকে কৌশলে বাঁচলেন হাসারাঙ্গা, তবে টেস্ট খেলছেননা তিনি!

Advertisement
Advertisement

বড় শাস্তি থেকে কৌশলে বাঁচলেন হাসারাঙ্গা, তবে টেস্ট খেলছেননা তিনি!বিশ্ব ক্রিকেটের নিয়ন্ত্রক সংস্থাকে নিয়ে যেন খানিকটা তামাশা করলো শ্রীলঙ্কা। আইসিসির নিয়মের ফাঁক ফোকরের সুবিধাটা বেশ ভালোভাবেই নিলো তারা। অদ্ভুত কৌঁশল এঁটে বাঁচিয়ে আনলো ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গাকে। গত বছরের আগষ্টে হুট করেই টেস্ট ক্রিকেটকে বিদাউ বলে দেন ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা। এরপর আর কোনো টেস্টে দেখা যায়নি তাকে।

তবে হঠাৎ গতরাতে বাংলাদেশের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজের জন্য ঘোষিত দলে দেখা মেলে তার। এরপর জানা যায়, অবসর ভেঙে সাদা পোষাকের ক্রিকেটে ফিরবেন এই অলরাউন্ডার। তখনই প্রশ্ন উঠে হঠাৎ কেন অবসর ভেঙে ফেরা তার? টাইগার ব্যাটারদের লেগ স্পিন দূর্বলতার সুযোগ নিতেই কি তবে ফেরা? সা’রাদিনের না’না গু’ঞ্জন শে’ষে জানা গেল আ’সল কারণ।

হাসারাঙ্গাকে খেলাতে নয়, বরং শাস্তি থেকে বাঁচাতেই মূলত ফেরানো হয়েছে দলে। বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজের শেষ ওয়ানডেতে সোমবার আম্পায়ারের সাথে অসদাচরণ করেন হাসারাঙ্গা। ফলে বড় শাস্তির শঙ্কায় ছিলেন তিনি। তাই তড়িঘড়ি করে টেস্ট দলে ফেরানো হয় তাকে। শ্রীলঙ্কান ক্রিকেট বোর্ডের এই দুরদর্শিতার ফলও মিলেছে।

বাংলাদেশের ইনিংসের ৩৭তম ওভারে রিশাদ হোসেনের বিপক্ষে এলবিডব্লুর আবেদন করেছিল শ্রীলঙ্কা। তবে আম্পায়ার্স কলে বেঁচে যান রিশাদ। সে ওভারের পর আম্পায়ারের হাত থেকে নিজের ক্যাপ ছিনিয়ে নেন হাসারাঙ্গা। ম্যাচে আম্পায়ারিং নিয়ে কটাক্ষও করেন তিনি। যা দৃষ্টি এড়ায়নি ম্যাচ রেফারির। আইসিসির কোড অব কন্ডাক্টের ২.৮ নম্বর ধারা ভেঙে ম্যাচ ফির ৫০ শতাংশ জরিমানায় পড়েছেন হাসারাঙ্গা।

সেই সাথে যোগ হয়েছে তিন ডিমেরিট পয়েন্টও। এই নিয়ে গত ২৪ মাসে আটটি ডিমেরিট পয়েন্ট পেলেন এই লঙ্কান। আইসিসির নিয়ম অনুযায়ী, আটটি ডিমেরিট পয়েন্ট পেলে শাস্তি স্বরূপ অভিযুক্ত ক্রিকেটার দুই টেস্ট বা চার ওয়ানডে কিংবা চারটি টি-টোয়েন্টিতে নিষিদ্ধ হবেন। ফলে হাসারাঙ্গাও পড়ে যান এই নিয়মের বেড়াজালে। যা চিন্তার কারণ ছিল শ্রীলঙ্কারও। কেন না আগামী জুনে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ও যুক্তরাষ্ট্রে টি-২০ বিশ্বকাপ মাঠে গড়াবে।

ব্রেকিং নিউজ: শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে টেস্ট খেলা থেকে বাদ পরলেন মুশফিক!

এর আগে শ্রীলঙ্কার আর কোনো সিরিজ নেই। ফলে হাসারাঙ্গাকে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রথম চার ম্যাচে নিষিদ্ধ থাকতে হতো। এমতাবস্থায় বাংলাদেশের বিপক্ষে টেস্ট সিরিজের দলে অন্তর্ভুক্ত করা হয় হাসারাঙ্গাকে। অবসর ভেঙে ফেরানো হয় তাকে। তবে মাঠে নয়, বুঝাই যাচ্ছে শাস্তি এড়াতে কেবল নামেই দলে ফেরানো হয়েছে এই লঙ্কানকে। যেন আইসিসির শাস্তির খড়গ এই টেস্ট সিরিজের উপর দিয়েই যায়।

সুতরাং নিষেধাজ্ঞার কারণে বাংলাদেশের বিপক্ষে দুটি টেস্টে খেলা হবে না এই লেগ স্পিনারের। তবে একই অপরাধ করে নিষেধাজ্ঞার শাস্তি থেকে বেঁচে গেছেন লঙ্কান অধিনায়ক কুশল মেন্ডিস। ম্যাচ শেষে হাত মেলাতে গিয়ে আম্পায়ারদের অবমাননা করেন তিনি। ফলে ম্যাচ ফির ৫০ শতাংশ জরিমানার পাশাপাশি তিনটি ডিমেরিট পয়েন্ট দেয়া হয় মেন্ডিসকে। তবে আর কোনো ডিমেরিট পয়েন্ট না থাকায় নিষেধাজ্ঞা পেতে হচ্ছে না তাকে।

Advertisement

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

x