June 16, 2024 8:21 pm
জিম্বাবুয়ে

টাইগারদের দুর্দান্ত বোলিংয়ে চাপের মুখে জিম্বাবুয়ে

Advertisement

টাইগারদের দুর্দান্ত বোলিংয়ে চাপের মুখে জিম্বাবুয়ে!
খেলোয়াড়কে হারিয়ে জিম্বাবুয়ে খেলায় ভালো করার চেষ্টা করলেও বাংলাদেশের বোলাররা আরও ভালো করছে। তারা খুব শক্তিশালী খেলছে এবং জিম্বাবুয়ের পক্ষে পয়েন্ট অর্জন করা কঠিন করে তুলছে।

জিম্বাবুয়ের ক্রিকেট দল সমস্যায় পড়েছে কারণ তারা প্রথম দিকে দুইজন খেলোয়াড় হারিয়েছে এবং তারপরে দ্রুত আরও অনেক খেলোয়াড়কে হারিয়েছে। চট্টগ্রামে খেলায় ভালো করছে না তারা।

মেহেদীকে আউট করার পর ভালো করছে বাংলাদেশ।

Advertisement

ক্রিকেটের একটি খেলায়, বাংলাদেশ দলের নেতা একটি মুদ্রা টস জিতে প্রথমে বোলিংয়ের সিদ্ধান্ত নেন। যে খেলোয়াড় বলটি নিক্ষেপ করেন তিনি দুর্দান্ত কাজ করেছিলেন এবং জিম্বাবুয়ে দলের একজন গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়কে খেলার শুরুতেই আউট করেছিলেন। এটি বাংলাদেশকে ভালোভাবে খেলা শুরু করতে এবং একটি সুবিধা পেতে সাহায্য করে।

জিম্বাবুয়ে দল তাদের প্রথম খেলোয়াড়কে হারায় যখন তারা ৮ রান করে। মেহেদি খুব দ্রুত এবং সহজে ক্রেগ আরভিনকে আউট করেন।
এবার ধোনির প্রতি কৃতজ্ঞতা জানিয়ে যে কথা বললেন মুস্তাফিজ
বাংলাদেশের ছয়জন খেলোয়াড় ছিল যারা বল মারতে পারে এবং বল ছুঁড়তে পারে এমন তিনজন খেলোয়াড়। তিনজন খেলোয়াড় দুইটাই পারে! তানজিদ হাসান তামিম তার প্রথম টি-টোয়েন্টি আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেছেন আজ। মাহমুদউল্লাহ তামিমকে তার প্রথম ক্যাপ দেন এবং তিনি আগের ম্যাচে ভালো খেলেছিলেন। দলে খেলছেন মাহমুদউল্লাহ ও সাইফুদ্দিনও।

যে দলে খেলছেন, সেই দলে অধিনায়ক নাজমুল হোসেন শান্ত। দলের অন্য খেলোয়াড়দের মধ্যে রয়েছেন লিটন কুমার দাস, তানজিদ হাসান তামিম, তাওহিদ হৃদয়, মাহমুদউল্লাহ, জাকের আলী অনিক, শেখ মেহেদী, তাসকিন আহমেদ, শরিফুল ইসলাম, সাইফুদ্দিন ও রিশাদ হোসেন।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে বিশ্বকাপের আগে ম্যাচ খেলতে শুরু করেছে বাংলাদেশ। ঘরের মাঠে পাঁচ ম্যাচের প্রথম খেলেছে তারা।

চট্টগ্রাম জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত ম্যাচে টস জিতে প্রথমে বোলিং করার সিদ্ধান্ত নেয় নাজমুল হোসেন শান্তর দল। সাগরিকাতে তিনটি এবং মিরপুর শেরেবাংলায় দুটি ম্যাচ খেলবে তারা।

বাংলাদেশ যখন জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে খেলে, তখন বাংলাদেশি ভক্তরা খুব উত্তেজিত হয় কারণ তারা সাধারণত বাংলাদেশের জয়ের প্রত্যাশা করে। তবে সম্প্রতি জিম্বাবুয়ের ক্রিকেট দল আগের মতো শক্তিশালী না হওয়ায় উত্তেজনা কমেছে। সাম্প্রতিক পারফরম্যান্সের ভিত্তিতে বাংলাদেশ দলকে এখন সম্ভাব্য বিজয়ী হিসেবে দেখা হচ্ছে।

বিশেষ ধরনের ক্রিকেট খেলায় বাংলাদেশ ও জিম্বাবুয়ে একে অপরের বিপক্ষে ২০ বার খেলেছে। লাল-সবুজের দল 13 বার জিতেছে এবং 7 বার হেরেছে। তারা সাতটি সিরিজও খেলেছে, যার মধ্যে বাংলাদেশ তিনটি জিতেছে, জিম্বাবুয়ে একটিতে জিতেছে এবং তিনটি টাই শেষ হয়েছে।

Advertisement
Advertisement