April 24, 2024 11:29 am
দিল্লিকে

খুব সহজেই দিল্লিকে হারিয়ে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে রয়েছে কলকাতা!

Advertisement
Advertisement

খুব সহজেই দিল্লিকে হারিয়ে পয়েন্ট টেবিলের শীর্ষে রয়েছে কলকাতা!ক্রিকেটের একটি খেলায় কলকাতা অনেক রান করে দিল্লিকে বড় লক্ষ্যে পৌঁছে দেয়। কিন্তু যখন দিল্লির ব্যাট করার পালা, তখন তারা কম রান করতে পারে। কলকাতা 106 রানের বড় ব্যবধানে খেলা শেষ করে।

বড় স্কোর ধরার চেষ্টায় শুরুতেই বেশ কষ্ট হয়েছিল দিল্লির। মিচেল মার্শ এবং অভিষেক পোরেল পৃথ্বী শ-কে অনুসরণ করলেও কোনো রান করতে পারেননি। ডেভিড ওয়ার্নার দিল্লিকে সাহায্য করার চেষ্টা করেছিলেন, কিন্তু খুব বেশি পয়েন্ট করতে পারেননি।

বাম হাতে ব্যাট করা এই ক্রিকেট খেলোয়াড় স্বদেশী স্টার্ক নামের একজন দুর্দান্ত বোলারের কারণে বেশি রান করতে পারেননি। ১৩ বলে মাত্র ১৮ রান করেন তিনি। কিন্তু তখন ঋষভ পন্থ নামে আরেক খেলোয়াড় ক্রিস্তান স্টাবস নামের আরেক খেলোয়াড়ের সঙ্গে রান তুলতে শুরু করেন। দিল্লি দলের অধিনায়ক মাত্র 23 বলে ফিফটি করতে সক্ষম হন। ২৫ বলে ৫৫ রান করে দলের বিশ্রামে ফিরে যান তিনি। দুর্ভাগ্যবশত, পরের বলেই অক্ষর প্যাটেল নামে পরবর্তী খেলোয়াড়কে ডাকা হয়, এবং দিল্লি দল ছয় উইকেট হারিয়ে মোট 126 রান করে। তারা আরও স্কোর করার চাপ অনুভব করছিল।

স্টাবস পরপর 28টি বল মেরে 50 পয়েন্ট পেয়েছিলেন, কিন্তু তারপর তাকে খেলা ছেড়ে দিতে হয়েছিল। প্রোটিয়া নামের আরেক খেলোয়াড় ৩২ বলে ৫৪ পয়েন্ট করেন। সমিত কুমার 6 বলে মাত্র 7 পয়েন্ট করেছিলেন তার আগে তাকেও বিদায় নিতে হয়েছিল।

শেষ পর্যন্ত রসিক সালাম এবং এনরিচ নরকিয়া মাত্র 4 রানে আউট হন এবং দিল্লি অনেক রানে খেলা হেরে যায়। কলকাতা 106 রানে জিতেছে।

আবার শুরু হচ্ছে টি-টোয়েন্টি চ্যাম্পিয়ন্স লিগ, কে পাবে সুযোগ!

বরুণ চক্রবর্তী এবং ভৈবব অরোরা অন্য দলের ব্যাটসম্যানদের তিনবার করে আউট করেন। মিচেল স্টার্ক দুই ব্যাটসম্যানকে আউট করেন এবং আন্দ্রে রাসেল ও সুনীল নারিন একজন করে ব্যাটসম্যানকে আউট করেন।

আগে কে আগে ব্যাট করবে তা বেছে নেওয়ার পর কলকাতার দুই খেলোয়াড় ফিট সল্ট ও সুনীল নারিন শুরুটা জোরালো করেন। দুর্ভাগ্যবশত, সল্ট ভালো পারফরম্যান্স ধরে রাখতে পারেনি এবং 12 বলে 18 রান করার পর খেলা ছেড়ে দিতে হয়েছিল।

কিন্তু তারপরে, নারিন সত্যিই ভাল খেলতে শুরু করে। তিনি মাত্র 21 বলে পঞ্চাশ রান করেন, যা সত্যিই দ্রুত। রঘুবংশী পরবর্তী ব্যাট করতে আসেন, এবং তারা একসাথে কলকাতাকে মাত্র 10 ওভারে 135 রান করতে সাহায্য করে।

নারিন সত্যিই 100 রান করার কাছাকাছি ছিলেন, কিন্তু তিনি 85 রান করে আউট হয়ে যান। রঘুবংশীও ভালো খেলেন এবং আউট হওয়ার আগে ৫০ রান পান।

তারপরে আন্দ্রে রাসেল এবং শ্রেয়াস আইয়ার কলকাতা দলকে সত্যিই ভাল করতে সহায়তা করেছিলেন। মাত্র 16 ওভারে তারা 200 রান করেছে। আইয়ার আউট হওয়ার পর, রিংকু সিংও দুর্দান্ত কাজ করেছিলেন, মাত্র 8 বলে 26 রান করেছিলেন।

শেষ ওভারে রাসেল ও রমনদীপ সিংকে আউট করে দারুণ কাজ করেছেন ইশান্ত। অল্প সময়ের মধ্যে ৪১ রান করেন রাসেল। সামগ্রিকভাবে, কলকাতা তাদের খেলায় অনেক রান করেছে, 272।

Advertisement
x