April 24, 2024 11:39 am

এবার টেস্ট সিরিজে বাংলাদেশ দলে অভিষেক হতে যাচ্ছে নতুন ২ জনের!

Advertisement
Advertisement

এবার টেস্ট সিরিজে বাংলাদেশ দলে অভিষেক হতে যাচ্ছে নতুন ২ জনের!অভিজ্ঞ ক্রিকেটারদের মধ্যে অধিকাংশই ছুটি আর চোটের কারণে সিলেট টেস্টে থাকবেন না। এক্ষেত্রে নতুনদের নিয়েই দল সাজাতে হচ্ছে নির্বাচকদের। দুই ক্রিকেটারের অভিষেকও হতে পারে আজ। অভিষেকের ইঙ্গিত পাওয়া গেল কোচ হাথুরুসিংহের কথায়। গতকাল থেকে সিলেটের আকাশে রয়েছে মেঘ। পাশাপাশি উইকেটে দেখা গেছে সবুজ ঘাস। উইকেট ও কন্ডিশনের এমন পরিস্থিতিতে যেকোনো দলই চাইবে পেস-সমৃদ্ধ দল সাজাতে।

শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে আজ থেকে শুরু হতে যাওয়া সিলেট টেস্টেও বাংলাদেশ দলের ভাবনা এমনই। জানা যায়, টেস্ট অভিষেক হয়ে যেতে পারে দুই তরুণ ফাস্ট বোলার মুশফিক হাসান এবং নাহিদ রানার। সঙ্গে অভিজ্ঞ খালেদ আহমেদ তো আছেনই। বাংলাদেশ দলের প্রধান কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহে আজ ম্যাচপূর্ব সংবাদ সম্মেলনে সে আভাসই দিলেন। টেস্ট দলে আছেন বাঁহাতি পেসার শরীফুল ইসলামও। কিন্তু টানা ক্রিকেটে ক্লান্ত শরীফুলকে ওয়ানডে সিরিজের পর ছুটি দেওয়া হয়েছে।

তিনি আজ সন্ধ্যার ফ্লাইটে সিলেটে দলের সঙ্গে যোগ দেবেন। প্রথম টে’স্টের আগে কোনো অনুশীলন ক’রেননি শরীফুল। ফলে আ’জকের একাদশে তার থাকার স’ম্ভাবনা নেই বললেই চলে। হা’থুরুসিংহ বলেন, ‘শ’রীফুল ঠিক আছে। সে অনেক বেশি সাদা বলের ক্রি’কেট খেলেছে। তাই আ’মরা তাকে ছুটি দি’য়েছি। তার বোলিং করার দ’রকার নেই। কারণ, সে অ’নেক বোলিং করেছে। সে খে’লার জন্য প্র’স্তুত।’ একাদশে কয়জন পেসার থাকতে পারেন, এই প্রশ্নের জ’বাবে তিনি যোগ করেন, ‘যারা আ’ছে তাদের মধ্যে হ’য়তো ৩ জন বা ২ জন খেলতে পারে।’

অভিষেক এর অপেক্ষায় থাকা নাহিদ ও মুশফিকের ব্যাপারে কোচের মন্তব্য, ‘দুজনই বাংলাদেশ ক্রিকেটের সম্ভাবনাময় খেলোয়াড়। দুজনই ১৪০ কিলোমিটারের বেশি গতিতে বল করতে পারে। আমরা দেখেছি ওরা কত জোরে বল করতে পারে। দুজনই তরুণ ও শক্তিশালী। প্রথম শ্রেণির ক্যারিয়ারে দুজনেরই শুরুটা ভালো হয়েছে। হ্যাঁ, আমি খুবই রোমাঞ্চিত। দুজনের একজনের এই ম্যাচে খেলার সম্ভাবনা দেখছি, হতে পারে দুজনই খেলবে।

’ সিলেটের কন্ডিশনেরও তেমনই চাহিদা। হাথুরুসিংহের ভাষায়, ‘(গত নভেম্বরের) নিউজিল্যান্ড টেস্টের তুলনায় উইকেট কিছুটা ভিন্ন। নিউজিল্যান্ড টেস্টে এত ঘাস ছিল না। এই টেস্টে আছে। আবহাওয়ারও একটা ভূমিকা থাকবে। প্রতিপক্ষ ও কন্ডিশনের এ বিষয়গুলো বিবেচনায় রাখলে এই টেস্টের চ্যালেঞ্জটাকে বড় মনে হবে। তবে নিউজিল্যান্ড সিরিজও চ্যালেঞ্জিং ছিল। আমাদের ওদের হারাতে হলে সেরা খেলাটাই খেলতে হবে।’

মাসআল্লাহ পবিত্র রমজানে ওমরাহ পালনে পাকিস্তানি ক্রিকেটার!

তারুণ্যে আস্থা রেখে হাথুরুসিংহে বলেন, ‘মুশির অভিজ্ঞতা আমরা মিস করব। এই ধরনের অভিজ্ঞতার বিকল্প খুঁজে বের করা খুবই কঠিন। একই সঙ্গে আমাদের তরুণ খেলোয়াড়দের সমর্থন দিতে হবে। হৃদয় দলে যোগ দিয়েছে। দুজন তরুণ ব্যাটসম্যান আছে দলে, দিপু এবং সাদমান। এটা বাংলাদেশ ক্রিকেটের জন্য রোমাঞ্চকর সময়। আমি তাদের বলব, এই সুযোগগুলো যেন তারা দুহাতে লুফে নেয়।

Advertisement
x